1. [email protected] : purbobangla :
রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:৩০ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পাঠ্যবই না পড়েই প্রতিক্রিয়া দিচ্ছেন মির্জা ফখরুল: তথ্যমন্ত্রী সারাদেশে বিএনপির পদযাত্রা ১১ ফেব্রুয়ারি পতেঙ্গায় ৯ লক্ষ টাকার বিয়ারসহ ২ মাদক কারবারি আটক পলাতক মূল হোতা সু চির মুক্তির পক্ষে জাতিসংঘে প্রস্তাব পাস বিএনপি জামাতের সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ দুস্থদের মাঝে কম্বল বিতরণ করলেন সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বিএনপির ১০ দফা দাবি মূল্যহীন: তোফায়েল আহমেদ ১ হাজার কোটির ক্লাবের পথে ‘পাঠান’ চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন প্রচারনায় সরগরম আদালত অঙ্গন সুফিবাদীদের প্রাণশক্তি আল্লামা আজিজুল হক ইমাম শেরে বাংলা (রহ.) ওফাত বার্ষিকী পালন করলেন সাবেক মেয়র এম. মনজুর আলম

ঠান্ডা মিয়ার গরম কথা ( ২২৮) মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী সমীপে

পূর্ব বাংলা ডেস্ক
  • প্রকাশিত সময়ঃ বুধবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২২
  • ৭৩ বার পড়া হয়েছে

মাননীয়,

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী সমীপে,

শ্রদ্ধেয় রেজা ভাইজানরে,

গরম গরম কথার শুরুতে আমার লাখ কোটি সালাম জানিবেন।আশা করি, আল্লাহ মালিকের অপার মহিমায় ভালো থাকিয়া চট্টগ্রাম উন্নয়নে নানান ফর্মূলা তৈরী ও বাস্তবায়ন করিয়া মহা- সুখেই আছেন। আমিও গ্রাম বাংলার এক মফস্বল শহরে থাকিয়া দেশের ভবিষ্যতের কথা ভাবিয়া ছাগলের তিন নাম্বার বাচ্ছার মতো খাইয়া না খাইয়া বাঁচিয়া আছি। গেলবারে প্রাক্তন মন্ত্রী সোহেল তাজ সমীপে ঠাণ্ডা মিয়ার গরম কথা লিখিবার সময় এইবার আপনার সমীপে লিখিব বলিয়াছিলাম, এইজন্য লিখিতেছি বলিয়া রাগ করিবেন না বরং শত ব্যস্ততার মধ্যেও গরম কথাটুকু পড়িয়া দেখিবেন ও যাহা প্রয়োজন তাহা করিবেন আর ভুল হইলে নিজ গুনে মাফও করিয়া দিবেন।

ভাইজানরে, 

  আপনি হইলেন, মেগা সিটি খ্যাত বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামের নির্বাচিত মেয়র।  চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক নাম পোর্টো গ্র্যান্ডে এবং ইসলামাবাদ যেইটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। বন্দরনগরী নামে পরিচিত এই শহরটি বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের চট্টগ্রাম জেলায় অবস্থিত। বাণিজ্যিক রাজধানী হিসাবে পরিচিত পাহাড়, সমুদ্র এবং উপত্যকায় ঘেরা চট্টগ্রাম শহর প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের জন্যে প্রাচ্যের রাণী হিসাবেও বিখ্যাত।বাংলাদেশের অর্থনীতিতে চট্টগ্রাম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করিয়া থাকে। চট্টগ্রাম বন্দর, বিশ্বের প্রাচীনতম বন্দরগুলির মধ্যে একটি, যাহার উপকূল টলেমির বিশ্ব মানচিত্রে আবির্ভূত হইয়াছে। এইটি দেশের প্রধান সামুদ্রিক প্রবেশদ্বার। বন্দরটি বঙ্গোপসাগরের সবচেয়ে ব্যস্ততম আন্তর্জাতিক সমুদ্রবন্দর এবং দক্ষিণ এশিয়ার তৃতীয় ব্যস্ততম বন্দর।এই আলোচিত শহরের আপনি হইলেন অভিভাবক।এখন আপনি প্রতি মন্ত্রীর পদ মর্যদায় আসীন।যদিও আপনার আগের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন মেয়র হইলেও প্রতিমন্ত্রীর মর্যদা পান নাই। যাক. সেইসব কথা ।

ভাইজানরে

শুনিয়াছি, ৯৫৩ সালে আরাকানের চন্দ্রবংশীয় রাজা সু-লা‌-তাইং-সন্দয়া চট্টগ্রাম অভিযানে আসিলেও কোন এক অজ্ঞাত কারণে তিনি বেশি দূর অগ্রসর না হইয়া একটি স্তম্ভ তৈরি করিয়াছেন। এটির গায়ে লিখা হয় ‘চেৎ-ত-গৌঙ্গ’ যাহার অর্থ ‘যুদ্ধ করা অনুচিৎ’। সে থেকে এ এলাকাটি চৈত্তগৌং হইয়া যায় বলিয়া লেখা হইয়াছে আরাকানি পুঁথি ‘রাজাওয়াং’-এ। এ চৈত্তগৌং থেকে কালক্রমে চাটিগ্রাম, চাটগাঁ, চিটাগাং, চট্টগ্রাম ইত্যাদি বানানের চল হইয়াছে।

পলাশীর যুদ্ধে বাংলার নবাব সিরাজউদ্দৌলার পরাজয়ের পর ইংরেজরা চট্টগ্রাম বন্দরের জন্য নবাব মীর জাফরের উপর চাপ সৃষ্টি করিয়াছিল। তবে, মীর জাফর কোনভাবেই ইংরেজদের চট্টগ্রাম বন্দরের কর্তৃত্ব দিতে রাজি হন নাই। ফলে, ইংরেজরা তাহাকে সরাইয়া মীর কাশিমকে বাংলার নবাব বানানোর ষড়যন্ত্র করিয়াছিল। ১৭৬১ সালে মীর জাফরকে অপসারণ করিয়া মীর কাশিম বাংলার নবাব হইয়া ইংরেজদের বর্ধমান, মেদিনীপুর ও চট্টগ্রাম হস্তান্তরিত করেন। চট্টগ্রামের শেষ ফৌজদার রেজা খান সরকারিভাবে চট্টগ্রামের শাসন প্রথম ইংরেজ চিফ ভেরেলস্ট-এর হাতে সমর্পণ করেন। শুরু হয় ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির শাসন।এই সব আমাদের চট্টগ্রামেরই সামান্য ইতিহাস।

ভাইজানরে,

‘কর’ লইয়া এইসব কী শুনিতেছি? ২২ মহল্লার সর্দারের ছেলেকে মামলা দেওয়া কী ঠিক হইয়াছে ? সচেতন লোকেরা বলিতেছে, এইটা নাকি মোটই ঠিক হয় নাই।ভিতরে ভিতরে আপনার বিরুদ্ধীবাদীরা এক হইতেছে কিনা ভাবিয়া দেখিবেন।মশার যন্ত্রণায় নগরবাসী অস্হির হইয়া উঠিতেছে।সন্ধ্যায় মশার উপদ্রুপ সত্যই নগরবাসীকে কুপোকাত করিয়া তুলিতেছে। সাবেক মেয়র মনজুর আলম বিষয়টি আমলে লইয়া নগর জুড়িয়া নিজ উদ্দোগে মশারী বিতরণ করিতেছে। আপনার শুভাকাঙ্কীরা বলিতেছে, মশা দমন করিয়া নগরবাসীর আস্থা অর্জন করা দরকার।

এইদিকে, পলিথিন বন্ধে আপনার পদক্ষেপে কি সুফল হইল তাহা নগরবাসী বুঝিতে পারিতেছে না। নয়া করিয়া আরো কিছু পলিথিন ও মশার কয়েল ফ্যাক্টরী হইতেছে বলিয়া খবর পাইতেছি। তলে তলে সিটি কর্পোরেশনের লোকজনও জড়িত বলিয়া ভোক্তভোগীরা বলিতেছে।কঠোর হস্তে এইসব দমন না করিলে আপনার সুনাম নষ্ট হইবে বলিয়া আপনার অসংখ্য ভক্তরা বলিতেছে।

আজ আর না । আপনার মঙ্গল ও সুস্বাস্থ্য কামনায় আপনারই বিশ্বস্থ গ্রাম বাংলার অখ্যাত ঠান্ডা মিয়া

গ্রন্থনা ম . আ. হ

আগামী সংখ্যায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমীপে ঠাণ্ডা মিয়ার গরম কথা (২২৯) সম্প্রচার করা হইবে।

শেয়ার করুন-

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 purbobangla