1. [email protected] : purbobangla :
মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৫২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
বঙ্গবন্ধু টানেলের সুফলের বদলে সংকট যানজট বাড়ার শঙ্কা চট্টগ্রাম গ্রামীণ চক্ষু হাসপাতালের ‘চক্ষু শিবির’ মানুষের মাঝে ছড়াচ্ছে আশার আলো ২৯নং ওয়ার্ডে এ.বি.এম. মহিউদ্দীন চৌধুরী পরিবারের পক্ষ থেকে শীত বস্ত্র বিতরণ গাউসিয়া কমিটি দুবাই আল আবীর শাখার দোয়া মাহফিল সৈয়দ মঈনুদ্দিন হোসেন মেমোরিয়াল একাডেমি কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে ব্রাদার্স ক্রিকেট একাডেমি  ও ব্রাইট একাডেমি চ্যাম্পিয়ন গাজীপুর জেলা ক্রীড়া অফিসের আয়োজনে অটিজম ছেলে-মেয়েদের ক্রীড়া উৎসব অনুষ্ঠিত চট্টগ্রামের প্রথম বেকিং ট্রেনিং সেন্টার ও শোরুমের যাত্রা শুরু  কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ভূমিকম্পে কাঁপলো এশিয়ার ৬ দেশ শ্রমিকরা অর্থনীতির আয়না : শাজাহান খান নবাবগঞ্জে করোনার ভ্যাকসিন দিতে গিয়ে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু

রাউজান হলদিয়ার এক ঝাঁক তরুণের অসাধারণ উদ্দোগে নির্মিত হলো সাঁকো

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৩০ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৩৪ Time View

 

  রাউজান প্রতিনিধি

যার যা আছে তা নিয়ে প্রস্তুত হও সেতু তৈরি করেই যাব, এই শ্লোগানে সেতু নির্মাণ করল হলদিয়ার এক ঝাঁক যুবক হলদিয়া ৪নং ওয়ার্ডস্থ হলদিয়া পুরাতন বইজ্জার হাট সংলগ্ন সর্তা খালের পশ্চিম পাড়ের সামাজিক যোগাযোগ বিচ্ছিন্নতার শক্তিদশা সর্তাখাল।

অত্র এলাকার ওয়ার্ড মেম্বার বাবু সবুজ বড়ুয়া বলেন- উল্ল্যেখ্য পাড়ার জনগনের এ ভোগান্তি দীর্ঘ দিনের, এখানে একটি সাঁকো চান এ এলাকার জনসাধারণ তবে এ বিষয়ে মাননীয় এমপির আশ্বস্ত করেছেন ।তাই আমাদের বিশ্বাস মাননীয় এমপি মহোদয়ের বিশাল উদ্দোগে লাখো মানুষের স্বপ্ন পুরণ করতে হলদিয়া হচ্ছারঘাট সেতু নির্মানের কাজ শিগ্রই করতে যাচ্ছেন। এরপর তিনি শিক্ষার্থীদের পারাপারের জন্য একটি সাঁকো স্থাপনের আশা দিয়েছেন।

বিশিষ্ট আওয়ামীলীগ নেতা নুর মু্হাম্মদ সওদাগর বলেন আমাদের খালের দুই পাড় জুড়ে ১৫০ পরিবারের শিক্ষা, চিকিৎসা, কৃষিকাজ ইত্যাদির জন্য একমাত্র যোগাযোগ মাধ্যম এই সর্তাখাল যা আমাদের দুই পাড়ের মানুষের সব কাজে আসা যাওয়ার বাধার কারন, তাই এখানে সেতু নয়, একটি সাঁকো হলেই যথেষ্ট হবে বলে মনে করি।

হলদিয়া সাজেদা কবির সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক সাংবাদিক মাওলানা দিদারুল আলম সরজমিন পরিদর্শন করে জানান- খালের বিপরীত পাড়ার সাধারণ মানুষ ছাড়া বিশেষ করে শিশু কিশোর শিক্ষার্থী ছেলে মেয়েদের শিক্ষার্জনের বড় বাঁধা এই ভূমি খেকু একশ্রুতি সর্তাখাল, যা শুধু উপর থেকে পানি আসে জোয়ার নেই। এই এলাকায় রয়েছে হিন্দু মুসলিম প্রায় ১৫০ পরিবারের ৬০০ মানুষের বসতবাড়ি যার কিছু অংশ ফটিকছড়ি হলেও অধিকাংশ এলাকা রাউজান উপজেলার অন্তর্গত।
এখানকার শিক্ষার্থীর জন্য এলোমেলো পথ পারিয়ে যাওয়া ফটিকছড়ি ধর্মপুর স্কুলের দুরত্ব ৪ কিলোমিটার কিন্ত মাত্র ৫০০ মিটার দুরত্বের নিকটতম স্কুল হলদিয়া সাজেদা কবির সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়া যায় না, তা ছাড়া সর্তখালের পুর্ব কোলেই চাষাবাস, হাট বাজার, শিক্ষা, চিকিৎসা সব তাই তাদের কষ্ট লাগবের জন্য এলাকার যুবকদের সহায়তায় কাঠ,বাশঁ দিয়ে সেতু নির্মানের উদ্দোগ নেয়  এলাকার যুব সমাজের পক্ষ থেকে যুবলীগ নেতা ইকবাল হোসেন , জসিম, মাষ্টার হাছান, মোমেন, এম বেলাল, নাজিম, সোহেল, কাশেম, জামাল, ফিরোজ, পংকজ পাল, রনি পাল, সাহিন, রাকিব,আরো ছিলেন নুর মু্হাম্মদ, নুর ইসলাম,নেজাম, সেলিম,আবিদ,জিসান,বিধান পাল,শফিউল,ইদ্রিস, মুহররম তিলক পাল প্রমুখ।

এদের উদ্দোগেটা দেখে সংযুক্ত হয় আরো একাধিক যুবক এলাকার মানুষের আর্থিক সহায়তায় ” যার যা আছে তা নিয়ে আস, এই শ্লোগানে ১৫ দিনের কাজ মাত্র ৫ ঘন্টায় সম্পন্ন করায় এলাকায় ও একাধিক পেইজবুক ফেসে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

এই সার্বজনীন সামাজিক কাজে অংশ নেন সমাজপতি মুরব্বী সহ মা বোনেরা। বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা নুর মু্হাম্মদ সওদাগর জানান তাদের অস্থায়ী সাঁকো নির্মানে প্রায় ৪০/৫০ হাজার টাকা খরচ হয়। তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন অনেক পরিশ্রমে নির্মিত এই সেতু প্রবল বর্ষার আগ পর্যন্ত টিকে থাকবে, তবে পাহাড়ি ঢল আসা মাত্রই নিমিষে অস্থিত্ব সহ বিলিন করে দেবে।এলাকার মানুষের ভরসা এই সাঁকো নির্মানে বাংলাদেশ সরকারের মনোনীত জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা বিশ্বে দ্বিতীয় মাদার তেরেসা প্রধানমন্ত্রীর একান্ত বিশ্বস্ত সাংসদ আলোকিত ব্যাক্তিত্ব জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত রাউজানের অভিভাবক এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর বিকল্প নেই।

শেয়ার করুন-

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 purbobangla